প্রাকৃতিক ওষুধ ডাবের পানি

একসময় গ্রামে কারো বাড়ি বেড়াতে গেলেই ডাবের পানি দিয়ে আপ্যায়ন করা হত। এমনকি শহরাঞ্চলেও এর কদর ছিল আকাশ ছোঁয়া। তবে সময়ের বিবর্তনে ডাবের পানির স্থান দখল করে নিয়ে কোক, পেপসি, ফান্টা। কিন্তু সাস্থ্য সুরক্ষায় এদের কাজ ডাবের পানির ঠিক উল্টো। যেখানে কোমল পানীয়তে কেবলই স্বাস্থ্যের ক্ষতি, সেখানে ডাবের পানিতে রয়েছে অনেক ধরণের উপকার।

চলুন জেনে নেওয়া যাক এই প্রাকৃতিক পানীয়টি কতভাবে আমাদের স্বাস্থ্যের উপকার করে।

১। ওজন কমাতে ডাবের পানি চমৎকার কাজ করে। এতে কোনো চর্বি বা কোলেস্টেরল নেই। তাই যত খুশি পান করতে পারেন। এছাড়াও ডাবের পানি চর্বি বার্ন করতে সাহায্য করে। প্রচুর পরিমাণে খনিজ উপাদান থাকার জন্য বাড়ন্ত শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ পর্যন্ত সবার জন্য ডাবের পানি যথেষ্ট উপকারী। তারুণ্য ধরে রাখতে ডাবের পানি যথেষ্ট উপযোগী। এতে চিনির পরিমাণও অল্প।

২। ডাবের পানি গ্যাসের প্রাকৃতিক ওষুধ হিসেবে কাজ করে। নিয়মিত ডাবের পানি করলে গ্যাসজনিত পেটের বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

1442248302৩। ডাবের পানি রক্তের ঘনত্ব বৃদ্ধি করে।

৪। নিয়মিত ডাবের পানি পান করলে মুখে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না।

৫। ফলের রসের থেকেও ডাবের পানির গুণাগুণ অনেক বেশি। ফলের রসের থেকে এতে অধিক পরিমাণ মিনারেল থাকে।

৬। ডাবের পানির অন্যতম একটি গুণ হল- এতে ক্যালরি যেমন কম তেমনি সুগারের পরিমাণও কম। ফলে ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য এটা বিশেষ উপকারী।

৭। প্রত্যেক দিন এক গ্লাস ডাবের পানি আপনার শরীরের অঙ্গগুলোকে সচল রাখতে সহায়তা করবে।

৮। ডাবের পানিতে পটশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম থাকে যা হৃদপিণ্ডের কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে। এ কারণে হঠাৎ করে শ্বাস- প্রশ্বাসের হার বেড়ে গেলে এক গ্লাস ডাবের পানি খেয়ে নিতে পারেন।

৯। ডাবের পানির প্রাকৃতিক পুষ্টিগুণ শরীরের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে, হৃদঝুঁকি কমায়। পাশাপাশি অন্যান্য কার্ডিওভাসকুলার বিষয়গুলোকে নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়া ডাবের পানি শরীরের ভেতরে অতিরিক্ত সুগার লেভেলকে নিয়ন্ত্রণ রাখে।

১০। ডাবের পানির মধ্যে এমন কিছু উপাদান আছে যা ব্যকটেরিয়া ও ভাইরাস মারতে বেশ কার্যকরী। এ কারণে খাবারসহ অন্যান্য মাধ্যমে প্রত্যেক দিন যেসব ব্যকটেরিয়া ও ভাইরাস আমাদের পেটে প্রবেশ করে সেগুলো মারার জন্য এক গ্লাস ডাবের পানি খাওয়া যেতেই পারে।

১১। ত্বকের জন্য খুবই উপকারী ডাবের পানি। সচেতনরা নিয়মিত ডাবের পানি পানের মাধ্যমে নিজের ত্বকের নানান সমস্যা থেকে বাঁচাতে পারেন।

১২। ডাবের পানির অন্য আরেকটি গুণ হলো চুলের বৃদ্ধি ও খুশকি দূর করা। ডাবের পানি চুলের পুষ্টি যোগানোর পাশাপাশি খুশকি দূর করতেও সহায়তা করে।