৬ ওষুধ ব্যবসায়ীকে সাড়ে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা

রেজিস্টার্ডবিহীন ও আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় ওষুধ বিক্রির দায়ে রাজধানীর মিডফোর্ড ও বাবুবাজার এলাকার ৬ ওষুধ ব্যবসায়ীকে মোট সাড়ে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রায় ৩০ লাখ টাকা মূল্যের ওষুধ জব্দ করা হয়েছে।

রবিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত র‌্যাব-১০ ও ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের যৌথ উদ্যোগে এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুর রহমান।

আনিসুর রহমান জানান, বাবুবাজার এলাকায় সরদার মেডিসিন মার্কেট, আমিন মেডিসিন মার্কেট, সোয়েব-হাবিব মার্কেট ও মিডফোর্ড টাওয়ারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে মেসার্স রাসেল ড্রাগ হাউজ, সুরইয়া মেডিসিন কর্ণার, ওয়াফা এজেন্সি, ফার্মা ভিউ, শরীফ কর্পোরেশন এবং মা ফাতেমা ফার্মেসী থেকে বিপুল পরিমাণ রেজিস্টার্ডবিহীন ও আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় ওষুধ জব্দ করা হয়।

এ অপরাধে মেসার্স রাসেল ড্রাগ হাউজের মালিক মো. জাহাঙ্গীর আলমকে (৩২) ৩ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের জেল এবং তার সহকারি ওষুধ বিক্রেতা মো. সানি (১৯) ও মো. সাব্বির (২৫) প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে প্রত্যেককে ১ মাসেcoteর জেল দেওয়া হয়।

সুরাইয়া মেডিসিন কর্নারের মালিক মো. জুয়েলকে (২৮) ৩ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের জেল, ওয়াফা এজেন্সির সহকারি বিক্রেতা মো. ফরহাদ হোসেনকে (২৭) ২ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ২ মাসের জেল, ফার্মা ভিউ এর মালিক দেওয়ান খায়রুল কবিরকে (৩৫) ২ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ২ মাসের জেল, শরীফ কর্পোরেশনের মালিক জোবায়ের শরীফকে (৩২) ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের জেল এবং মা ফাতেমা ফার্মেসির মালিক মো. নাসিরকে (৩৭) ৩ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের জেল প্রদান করা হয়েছে।

এ সময় ৬টি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ৩০ লাখ টাকা মূল্যের রেজিস্টার্ডবিহীন ও আমদানি নিষিদ্ধ ভারতীয় ওষুধ জব্দ করে ধ্বংস করা হয়।