নোয়াখালীতে করোনায় আক্রান্ত এক চিকিৎসক — ভালো থাকুন

নোয়াখালীতে করোনায় আক্রান্ত এক চিকিৎসক

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

২৮ বছর বয়সী ওই চিকিৎসক বর্তমানে ঢাকায় কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তিনি ছাড়া হাসপাতালের আরও দুই চিকিৎসককে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: নাজিম উদ্দিন।

এ ঘটনায় হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীদের মাঝে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নাজিম উদ্দিন জনান, করোনায় আক্রান্ত তার হাসপাতালের এই মেডিকেল অফিসার গত ২১ মার্চ ঢাকা থেকে হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডরমেটরিতে আসেন। এরপর তিনি হাসপাতালে নিয়মিত চিকিৎসা সেবা দিতে থাকেন।

তিনি জানান, ২৬ শে মার্চ তিনি পায়ে ব্যথা পান। তারপর তার শরীরে জ্বর আসে। সাথে সর্দি, কাশিও দেখা দেয়। এরপর ক্রমান্বয়ে তার শরীরে জ্বরের তীব্রতা বাড়তে থাকলে ৩১ মার্চ তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহায়তায় ঢাকায় তার নিজ বাসভবন বাড্ডায় পাঠানো হয়। ঢাকা গিয়ে ওই চিকিৎসক তার শারীরিক অবস্থার কথা জানান।

নাজিম উদ্দিন জানান, এরপর ওই তরুণ চিকিৎসক সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) গিয়ে পরীক্ষার জন্য নমুনা  (স্যাম্পল) দিয়ে আসেন। বুধবার বিকেলে তিনি রিপোর্ট হাতে পান। ওই রিপোর্টে কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে। বর্তমানে তিনি ঢাকায় নিজ বাসভাবনে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে বলে জানান ডা. নাজিম উদ্দিন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওই ডাক্তারের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতাল ক্যাম্পাসে করোনা আতঙ্ক দেখা দেয়। এ ঘটনায় হাসপাতালে আরো দুই মেডিকেল অফিসারকে হোম কোরেন্টাইনে রাখা হয়েছে। ওই দুইচিকিৎসক আক্রান্ত চিকিৎসকের সঙ্গে এক ডরমেটরিতে ছিলেন।

এদিকে করোনা সন্দেহে হাতিয়া উপজলা থেকে এ পর্যন্ত মোট ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে এর পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজনের টেস্টের ফলাফল পৌঁছেছে। ওই দুইজনের টেস্টের ফলাফল নেগেটিভ এসেছে।

নোয়াখালী জেলা প্রসাশক তন্ময় দাস বালেন, তিনি নোয়াখালী সিভিল সার্জনের মাধ্যমে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরটি জেনেছেন। বর্তমানে ওই চিকিৎসকের শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকে রয়েছে। এ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সকাইকে সতর্কতার সহিত নিজ নিজ বাস ভবনে থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

ROOT

করোনার ৩ নতুন উপসর্গ হচ্ছে সর্দি, বমিভাব আর ডায়রিয়া

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ সংস্থা (সিডিসি) করোনাভা্রাসের নতুন তিনটি উপসর্গ চিহিৃত করেছে। নতুন ৩ উপসর্গ হচ্ছে সর্দি, বমিভাব আর ...
Read More

করোনায় শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আসাদুজ্জামানের মৃত্যু

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আসাদুজ্জামান মারা গেছেন। ...
Read More

করোনা উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু

গাজীপুরের শ্রীপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ফিরোজ আল-মামুন (৪০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ফিরোজ উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের মাওনা গ্রামের মৃত ...
Read More

অতিরিক্ত অর্থে মিলছে অক্সিজেন

রাজশাহীতে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। আর এর চাইতেও বেশি আছে করোনা উপসর্গ নিয়ে নতুন রোগীর সংখ্যা। এ ধরনের ...
Read More

উপসর্গে ওসমানী মেডিকেলের অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকরের মৃত্যু

সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকর দে করোনাভাইরাসের ...
Read More

চীনের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হতে পারে বাংলাদেশে

করোনাভাইরাস নির্মূলে চীন আবিষ্কৃত সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বাংলাদেশে হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। ...
Read More

ক‌রোনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উপদেষ্টার মৃত্যু

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের চেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট উপদেষ্টা আল্লাহ মালিক কাজেমী মারা গেছেন। শুক্রবার (২৬ জুন) বিকেলে এভার কেয়ার ...
Read More

রাজশাহীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে দু’জনের মৃত্যু,

প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজশাহীতে মারা গেছেন একজন। আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে করোনার উপসর্গ নিয়ে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে রাজশাহী মেডিকেল ...
Read More

করোনায় মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যানের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বেসরকারি মার্কেন্টাইল ব্যাংকের উদ্যোক্তা পরিচালক ও ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি ...
Read More
%d bloggers like this: