বিশ্বের ডায়াবেটিসের রাজধানী কোথায় আপনি জানেন কি ? — ভালো থাকুন

বিশ্বের ডায়াবেটিসের রাজধানী কোথায় আপনি জানেন কি ?

ভারতকে এখন বিশ্বের ডায়াবেটিসের রাজধানী বলা যেতে পারে। প্রায় ৬০ মিলিয়ন লোক এদেশে ডায়াবেটিসে ভুগছেন। বংশগত কারণ তো আছেই, জীবনযাপনের দোষও কিছু কম নয় রক্তে চিনির মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে। তবে, সঠিক জীবনযাপন ও নিয়মিত চেক-আপ না করালে এ থেকে নান জটিলতাও হতে পারে।
যা জানা প্রয়োজন
* আমাদের মধ্যে ভুল ধারণা আছে যে ডায়াবেটিস হলে সবসময় তার নির্দিষ্ট লক্ষণ থাকবে। কিন্তু মোটে ৩০ শতাংশ রোগীর ক্লাসিক সিম্পটম যেমন ঘনঘন ইউরিন হওয়া, তেষ্টা পাওয়া ইত্যাদি থাকে। অনেকের ক্ষেত্রেই এত দেরিতে অসুখ ধরা পড়ে যে ততদিনে ডায়াবেটিসজনিত জটিলতা দেখা দেয় রোগীর মধ্যে।
* দু’ধরণের জটিলতা হতে পারে: মাইক্রোভাসকুলার ও ম্যাক্রোভাসকুলার কমপ্লিকেশন। প্রথমটির দরুণ স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাক হতে পারে। ডায়াবেটিস থাকলে স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা অনেকগুণ বেড়ে যায়। হার্ট ফেলিওর, হঠাৎ কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট ইত্যাদি হওয়ার ঝুঁকি এদের বেশি। আবার পায়ে রক্তের যোগান দেয় যে ধমনীগুলো, সেগুলো শুকিয়ে যেতে পারে। এর ফলে হাঁটতে যেমন ব্যথা হতে পারে তেমনই কেটে গেলে শুকোতেও দেরি হয়। ফুট আলসার বা ফুট ইনফেকশনও ডায়াবেটিসের অন্যতম ফলাফল। আর দ্বিতীয় ধরণের জটিলতার কারণে রেটিনোপ্যাথি হতে পারে। কিডনির সমস্যাও হতে পারে। ডায়াবেটিস কিন্তু রেনাল ফেলিওর-এর অন্যতম বড় কারণ। ডায়াবেটিস রোগীদের তাই প্রতি বছর চোখের রুটিন চেক-আপ করা দরকার। অনেকে তো আবার রেটিনোপ্যাথির কোন উপসর্গও বুঝতে পারেন না। হয়তো কারও অ্যাডভান্স্ড রেটিনোপ্যাথি রয়েছে, কিন্তু তিনি কিছুই বুঝতে পারেননি। হঠাৎ একদিন সকালে দেখলেন চোখে কিছুই দেখতে পাচ্ছেন না। মতে রাখা দরকার, ডায়াবেটিস থেকে কোন জটিলতা হলে, তার ফল দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে।
* ডায়াবেটিস একবার ধরা পড়লে নিয়মিত চেক-আপ করানো দরকার। ডাক্তারের পরামর্শে মোনোফিলামেন্ট টেস্ট করাতে হতে পারে। এতে বোঝা যায় রোগীর নিউরোপ্যাথি আছে কি না। এর ফলে পায়ের অনুভুতি চলে যায়। কোন রকম ব্যথা অনুভব করতে পারেন না রোগী। এছাড়া রক্ত টেস্টও করতে দেওয়া হয়। লিপিড প্রোফাইলও টেস্ট করতে হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সমস্যা হয় দেরিতে ডায়াগনোসিস হলে। হয়তো তার পাঁচ-দশ বছর আগে ডায়াবেটিস শুরু হয়ে গিয়েছে। কিন্তু ডাক্তারের কাছে যখন তিনি আসেন, ততদিনে হয়তো কিছু জটিলতা দেখা যেতে শুরু করেছে। সেজন্যই ডায়াবেটিস হল ‘সাইলেন্ট কিলার’।
* ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে চারটি জিনিসের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ: ডায়েট, এক্সারসাইজ, ওষুধ ও সচেতনতা। ডায়াবেটিস হলেই যে খাওয়াদাওয়ার উপর কার্ফু জারি করতে হবে, এমনটা নয় মোটেও। সবই খেতে পারেন, তবে পরিমিত পরিমাণে। রোগীর কত ক্যালরি, কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন প্রয়োজন, তার উপর ভিত্তি করে ডায়েট চার্ট তৈরি করে দেওয়া হয়। সাধারণ ওজনের মানুষের ক্ষেত্রে দৈনিক ১২০০-১৫০০ ক্যালরি ইনটেক প্রয়োজন। রিফাইন্ড শুগার বা মিষ্টি খাওয়া বারণ। চায়ে চিনি খাবেন না। এছাড়া আলু, ভাত খাওয়ার উপর কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। ভাত ও আটার রুটিতে কার্বোহাইড্রেট ও ক্যালরির পরিমাণ প্রায় সমান। মোট ক্যালরি ইনটেকের মধ্যে স্যাচুরেটেড ফ্যাট-এর (ডালদা, ঘি) পরিমাণ ১০ শতাংশের বেশি যেন না হয়। ডায়েটে ফাইবার আর কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ বেশি রাখুন। সবুজ সবজির মধ্যে ফাইবার থাকে প্রচুর।
* সপ্তাহে ১৫০ মিনিট এক্সারসাইজ করা প্রয়োজন। যদি পাঁচদিন আধঘণ্টা করে সময় বের করে নেন এক্সারসাইজের জন্য, তাহলেই যথেষ্ট। আরও কিছু বেশি ঘাম ঝরাতে পারলে তো কথাই নেই। ব্রিস্ক ওয়ার্কিং করতে পারেন। আধঘণ্টা একটু জোরে হাঁটলে প্রায় দু›থেকে তিন কিলোমিটার হেঁটে ফেলতে পারবেন।
* একইসঙ্গে ধূমপান একদম বারণ। যেহেতু ডায়াবেটিসের রোগীদের হার্টের অসুখ, স্ট্রোক, কিডনির অসুখ ইত্যাদির সম্ভাবনা বেশি থাকে, তাই সিগারেট থেকে পুরোপুরি দূরে থাকতে হবে। সপ্তাহে সাত পেগের বেশি অ্যালকোহল খাবেন না। কারণ, অ্যালকোহলে ক্যালরির পরিমাণ খুব বেশি থাকে। নুন কম করে খাবেন। এতে রক্তচাপ বাড়ার সম্ভাবনা থাকে।
* এসবকিছুর সঙ্গে প্রয়োজন ডায়াবেটিস সম্পর্কে সচেতনতা। ডায়াবেটিস হলে কি কি জটিলতা হতে পারে সে সম্পর্কে রোগীর ধারণা থাকলে তবেই সে আগেভাগে সচেতন হবে।

ROOT

করোনার ৩ নতুন উপসর্গ হচ্ছে সর্দি, বমিভাব আর ডায়রিয়া

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ সংস্থা (সিডিসি) করোনাভা্রাসের নতুন তিনটি উপসর্গ চিহিৃত করেছে। নতুন ৩ উপসর্গ হচ্ছে সর্দি, বমিভাব আর ...
Read More

করোনায় শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আসাদুজ্জামানের মৃত্যু

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আসাদুজ্জামান মারা গেছেন। ...
Read More

করোনা উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু

গাজীপুরের শ্রীপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ফিরোজ আল-মামুন (৪০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ফিরোজ উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের মাওনা গ্রামের মৃত ...
Read More

অতিরিক্ত অর্থে মিলছে অক্সিজেন

রাজশাহীতে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। আর এর চাইতেও বেশি আছে করোনা উপসর্গ নিয়ে নতুন রোগীর সংখ্যা। এ ধরনের ...
Read More

উপসর্গে ওসমানী মেডিকেলের অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকরের মৃত্যু

সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকর দে করোনাভাইরাসের ...
Read More

চীনের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হতে পারে বাংলাদেশে

করোনাভাইরাস নির্মূলে চীন আবিষ্কৃত সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বাংলাদেশে হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। ...
Read More

ক‌রোনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উপদেষ্টার মৃত্যু

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের চেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট উপদেষ্টা আল্লাহ মালিক কাজেমী মারা গেছেন। শুক্রবার (২৬ জুন) বিকেলে এভার কেয়ার ...
Read More

রাজশাহীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে দু’জনের মৃত্যু,

প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজশাহীতে মারা গেছেন একজন। আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে করোনার উপসর্গ নিয়ে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে রাজশাহী মেডিকেল ...
Read More

করোনায় মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যানের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বেসরকারি মার্কেন্টাইল ব্যাংকের উদ্যোক্তা পরিচালক ও ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি ...
Read More
%d bloggers like this: