মেডিকেল ডেন্টালে ভর্তির জন্য প্রতি মিনিটে ৬৮ আবেদন

দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষার অনলাইনে আবেদন বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়েছে। অনলাইনে আবেদনের প্রথম দিন অর্থাৎ গত ২৪ ঘন্টায় প্রায় অর্ধ লাখ (৪৯ হাজারেরও বেশি) আবেদন জমা পড়েছে। সে হিসেবে প্রতি মিনিটে ৬৮টিরও বেশি আবেদন জমা পড়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্ভরযোগ্য একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভর্তি সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা  জানায়, অনলাইনে আবেদনের প্রথম দিনেই রাজধানীর ৫টি সরকারি মেডিকেল-ঢাকা মেডিকেল কলেজ, স্যার সলিমুল্লাহ মিটফোর্ড মেডিকেল কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ, মুগদা মেডিকেল কলেজ ও ঢাকা ডেন্টাল কলেজে নির্ধারিত সংখ্যক পরীক্ষার্থীর বিপরীতে আবেদনপত্র জমা পড়েছে। তিনি জানান, এ পাঁচটি মেডিকেলের আসনের মধ্যে ঢাকা মেডিকেলে ৯ হাজার ৯৯৯টি, সলিমুল্লাহ ৭ হাজার, শহীদ সোহরাওয়ার্দীতে ৭ হাজার, মুগদায় ৫ হাজার ও ডেন্টালে ৬ হাজার আসন রয়েছে। এ সমসংখ্যক আসনে আবেদনকারীর সংখ্যা পূর্ণ হয়ে গেলে এরপর ঢাকার বাইরের মেডিকেল কলেজে গিয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে হয়।

এ কারণে অনেকেই প্রথম দিকেই অনলাইনে আবেদন করে থাকেন। ইতোপূর্বে প্রথম ২৪ ঘন্টায় সব মেডিকেল কলেজে নির্ধারিত সংখ্যক পরীক্ষার্থীর বিপরীতে আবেদন জমা পড়েনি বলে ওই কর্মকর্তা মন্তব্য করেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো.আবদুর রশীদের কাছে এ তথ্যের সত্যতা জানতে চাইলে তিনি তথ্য সঠিক বলে স্বীকার করে বলেন, জানা মতে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় অনলাইনে আবেদন গ্রহণ শুরুর পর থেকে শুক্রবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৯ হাজারের মতো আবেদন জমা পড়েছে বলে তাকে অবহিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে শুরু হওয়া ভর্তি পরীক্ষার আবেদন আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত করা যাবে। ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ৪ অক্টোবর পর্যন্ত প্রবেশপত্র বিতরণ করা হবে।

আগামী ৬ অক্টোবর শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত ১০০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এক ঘণ্টার এমসিকিউ পরীক্ষায় জীববিদ্যা-৩০, রসায়ন-২৫,পদার্থবিদ্যা-২০, ইংরেজি-১৫ এবং সাধারণ জ্ঞান, বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি ৬ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে ৪ নম্বর থাকবে। পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০।

ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, ২০১৪ বা ২০১৫ সালে এসএসসি ও ২০১৬ বা ২০১৭ সালে এইচএসসি সমমানের পরীক্ষায় পদার্থ, রসায়ন ও জীববিদ্যাসহ পাস করেছেন এমন শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। তবে ২০১৪ সালের আগে যারা এসএসসি পাস করেছেন তারা আবেদন করতে পারবেন না। আবেদনের যোগ্যতা হিসেবে এসএসসি ও এইচএসসি ও সমমানের দু’টি পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৯ থাকতে হবে। উপজাতি ও পার্বত্য উপজেলায় বসবাসকারী অ-উপজাতিদের জন্য জিপিএ ৮ থাকতে হবে। তবে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় পৃথকভাবে জিপিএ ন্যূনতম ৩ দশমিক ৫ থাকতে হবে।

এদিকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত রাজধানীসহ সারাদেশের মেডিকেল ও ডেন্টাল ভর্তি কোচিং বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছে। দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে অনুষ্ঠিতব্য ভর্তি পরীক্ষা অবাধ, সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার সঙ্গে সম্পন্ন করতে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ২১ আগস্ট মন্ত্রণালয়ের চিকিৎসা শিক্ষা-১ অধিশাখার উপসচিব বদরুন নাহার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়।

ROOT

%d bloggers like this: