স্পেন ও চেক প্রজাতন্ত্রের দাবি চীনের টেস্টিং কিট ত্রুটিপূর্ণ’

চীন থেকে পাঠানো দ্রুত করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ কিট ‘ত্রুটিপূর্ণ’ বলে দাবি করেছে স্পেন ও চেক প্রজাতন্ত্র। এ মাসের শুরুতে চেক প্রজাতন্ত্র ১ লাখ ৫০ হাজার দ্রুত শনাক্তকরণ কিট আমদানি করে চীন থেকে। এগুলোর ৮০ শতাংশই ত্রুটিপূর্ণ বলে জানায় চেক সংবাদমাধ্যম সাইট এক্সপ্যাটস।

সাইট এক্সপ্যাটসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীন থেকে আনা কিট দিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে পরীক্ষা করা গেলেও অন্য কিটের তুলনায় এগুলোর কার্যকারিতা কম, অধিকাংশ সময়ই ত্রুটিপূর্ণ।

৫ লাখ ৪৬ হাজার ডলার মূল্যে চীনের কাছ থেকে এক লাখ কিট কিনেছিল চেক প্রজাতন্ত্রের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

চীনা কোম্পানি বায়োইজির কাছ থেকে কেনা দ্রুত করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ কিটও ‘ত্রুটিপূর্ণ’ বলে দাবি করেছে স্পেন। স্প্যানিশ সংবাদপত্র এল পাইসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভাইরাস শনাক্ত করার ক্ষেত্রে এগুলো মাত্র ৩০ শতাংশ কার্যকর।

স্পেনের ‘সেন্টার ফর হেলথ’ এর পরিচালক ফার্নান্দো সিমোন বলেন, ‘নয় হাজার টেস্টিং কিট ব্যবহার করা হয়েছে। অধিকাংশই ত্রুটিপূর্ণ ফল দেখানোয় অবশিষ্ট কিটগুলো আমরা চীনে ফেরত পাঠাচ্ছি।’

চীন থেকে সরবরাহ করা দ্রুত শনাক্তকরণ কিট ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়েছে স্প্যানিশ সোসাইটি অব ইনফেকশাস ডিজিজ অ্যান্ড ক্লিনিকাল মাইক্রোবায়োলজি।

স্পেনের চীনা দূতাবাস জানায়, ‘বায়োইজি কোম্পানি থেকে কেনা কিটগুলো আনুষ্ঠানিকভাবে চীনের তৈরি মেডিকেল সরঞ্জামের অন্তর্ভুক্ত না।’

ROOT

%d bloggers like this: