১৬ বানর হত্যার দায় স্বীকার করলেন শাহানা বেগম

মাদারীপুর সদর উপজেলার চরমুগরিয়া এলাকায় ১৬টি বানর হত্যার অভিযোগে দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে থানা পুলিশ। পরে জিজ্ঞাসাবাদে এক নারী বানর হত্যার কথা স্বীকার করায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। রোববার বিকেলে ওই নারীকে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মাদারীপুর সদর উপজেলার চরমুগরিয়া এলাকায় সম্প্রতি ১৬টি বানরকে বিষ প্রয়োগ করে হত্যা করে দুষ্কৃতকারীরা। পরে বন বিভাগের পক্ষ থেকে মাদারীপুর সদর থানায় বানর হত্যার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়াও চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন মাদারীপুর জেলা প্রশাসক।

এ ঘটনায় শনিবার গভীর রাতে মাদারীপুর সদর উপজেলার মধ্য খাগদী এলাকা থেকে লতু হাওলাদারের স্ত্রী শাহানা বেগম ও আজিজ হাওলাদারের ছেলে আকু হাওলাদারকে আটক করে পুলিশ। আটকরা সম্পর্কে দেবর-ভাবি। পরে শাহানা দোষ স্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা বলেন, বানর হত্যার ঘটনায় সদর থানায় মামলা হলে সন্দেহভাজন দুজনকে আটক করি। এদের মধ্যে শাহানা বেগম নামে এক নারী বানর হত্যার কথা স্বীকার করেন। তবে তার দেবর দোষী না হওয়ায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

ওই নারী জানিয়েছেন, খাবারের সঙ্গে বিষ দিয়েছিলেন বানরগুলোকে। এতেই মারা গেছে বানরগুলো। তবে কোন ধরনের বিষ সেটা জানা সম্ভব হয়নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বোঝা যাবে।

উল্লেখ্য, গত ৬ মে বিকেলে ওই এলাকায় বেশ কয়েকটি বানরের মুখ থেকে বিষাক্ত লালা পড়তে দেখা যায়। তখন কয়েকটি বানরকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। কয়েকটি বিষে কাতরাচ্ছিল। ৬ মে সন্ধ্যার দিকে ১২টি ও ৭ মে সকালে আরও ৪টি বানর মারা যায়। পরে বানরগুলো সংগ্রহ করে মাটিচাপা দেয় স্থানীয়রা।

ROOT

%d bloggers like this: