২০১৬ সালে চিকিৎসা বিজ্ঞানের কিছু অর্জন — ভালো থাকুন

২০১৬ সালে চিকিৎসা বিজ্ঞানের কিছু অর্জন

সভ্যতার বিবর্তনে মূল অবদান রেখে চলেছে বিজ্ঞান। এই বিজ্ঞানের কল্যাণে মানবজাতি সময়ের পথ ধরে উন্নত থেকে উন্নতর জীবন লাভ করছে প্রতিনিয়ত। সেক্ষেত্রে চিকিৎসা বিজ্ঞানের অবদানও কম নয়। মানুষকে রোগব্যাধি মুক্ত জীবন উপহার দিতে চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা নিরলস কাজ করে চলেছেন, প্রতিনিয়ত অগ্রগতি সূচিত হচ্ছে বিজ্ঞানের এই শাখায়।

 

সদ্য গত হওয়া ইংরেজি বছর ২০১৬ সালেও বেশ কিছু অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে চিকিৎসাবিজ্ঞানে।

দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকের পাঠকদের জন্য তেমন কিছু অগ্রগতির কথা তুলে ধরেছেন ডা. শাহজাদা সেলিম।

চিকিৎসা বিজ্ঞানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রয়োগ

অনেকদিন ধরে বিজ্ঞানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (artificial intelligence) ব্যবহারের চেষ্টা চলছে। এ বছর চিকিৎসা বিজ্ঞানেও এর সম্ভাব্য ব্যবহার শুরু হয়েছে। ভবিষ্যতে প্যাথলজির স্লাইড, এক্স-রে, ত্বকের ক্ষত এবং চোখের রেটিনার সমস্যা নির্ণয়ের কাজে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহার আরও বাড়বে। চিকিৎসা ক্ষেত্রে এর প্রয়োগের জন্য ৯০টিরও বেশি কোম্পানি কাজ শুরু করেছে। আইবিএম, অ্যাপল, গুগল এবং মাইক্রোসফট এক্ষেত্রে বিশাল অংকের অর্থ বিনিয়োগ করেছে।

শরীরে পরিধেয় সেন্সর

শরীরে পরার মতো সেন্সর (Advanced Wearable Sensors) উদ্ভাবনায় ২০১৬ সাল একটি সফল বছর। এগুলো এমন এক ধরনের যন্ত্র যা ঘড়ি কিংবা বেল্টের মতো, শরীরে এগুলো পরে থাকলে রক্তের বিভিন্ন রাসায়নিক উপাদানের পরিমাণ জানা যাবে। অবিরাম রক্তের গ্লুকোজ, অ্যালকোহল কিংবা ল্যাক্টেট পরিমাপ করার মতো সেন্সর এ বছর তৈরি হয়েছে এবং সফলভাবে তা ব্যবহার করা হচ্ছে।

ক্যান্সারের তরল বায়োপসি

কারো ক্যান্সার হলে তার রক্তে টিউমার ডিএনএ ভাসমান থাকে। রক্তের টিউমার ডিএনএ শনাক্ত করার প্রক্রিয়াকে তরল বায়োপসি বা লিকুইড বায়োপসি (Liquid Biopsy for Cancer) বলা হয়। সাধারণত ক্যান্সার শনাক্ত করার জন্য ক্যান্সার আক্রান্ত অঙ্গের বায়োপসি করে পরীক্ষা করা হয়। এর জন্য শল্যকর্মের প্রয়োজন হয়। কিন্তু রক্তের টিউমার ডিএনএ শনাক্ত করা সহজ এবং ঝামেলামুক্ত। এ পর্যন্ত পঞ্চাশেরও বেশি ধরনের টিউমার ডিএনএ চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, এর ফলে আগামীতে যাদের ক্যান্সারের লক্ষণ-উপসর্গ প্রকাশিত হয়নি তাদের ক্যান্সার ও টিউমার ডিএনএ-র সাহায্যে শনাক্ত করা যাবে।

ভার্চুয়াল হাসপাতাল বা বিছানাবিহীন হাসপাতাল

টেলি-মেডিসিনের অগ্রগতির ফলে এখন হাসপাতালের চেহারা বদলে যাচ্ছে। এ বছর আমেরিকার সেন্টলুইসে প্রথম ভার্চুয়াল হাসপাতাল বা বিছানাবিহীন হাসপাতাল চালু হয়েছে। ৩৩০ জন চিকিৎসক এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী নিয়ে এই হাসপাতাল কমিউনিটিতে দূর-দূরান্তের হাজার হাজার রোগীর দেখাশোনা করছে। এ ছাড়া এখন টেলি-মেডিসিনের মাধ্যমে বহির্বিভাগের রোগীও দেখা হচ্ছে।

ডিএনএ সম্পাদনা

২০১৬ সালের ২৮ অক্টোবর চীনে প্রথমবারের মতো ফুসফুসের ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য জিন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। এ জন্য CRISPR Genome Editing-এর সাহায্য নেওয়া হয়েছে। CRISPR Genome Editing একটি নতুন ধরনের জিন প্রযুক্তি। এর সাহায্যে রোগের মূল জিনটি শনাক্ত করে প্রয়োজন মতো কেটেছেঁটে বাদ দেওয়া যায় এবং সেখানে ভালো জিন প্রতিস্থাপন করা হয়। এটাকে বলা যায় ডিএনএ কাটাকুটি করার কাঁচি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও CRISPR Genome Editing প্রযুক্তি দিয়ে কি কি রোগের চিকিৎসা করা যাবে তা নিয়ে ট্রায়াল শুরু হয়েছে।

স্মার্টফোন ইকোকার্ডিওগ্রাফি

২০১৫ সালে স্মার্টফোন দিয়ে আলট্রাসোনো করা আরম্ভ হয়েছিল। ২০১৬ সালে আরেক ধাপ এগিয়ে স্মার্টফোন ইকোকার্ডিওগ্রাফি করা শুরু হয়েছে। ২০১৬ সাল ছিল স্টেথোস্কোপ আবিষ্কারের ২০০ বছর। এই দীর্ঘ সময় ধরে চিকিৎসকদের গলায় ঝুলানো স্টেথোস্কোপ ছিল চিকিৎসা কর্মে নিয়োজিত থাকার প্রতীক এবং রোগীদের আস্থার আশ্রয়। বুকের ভিতরের সবকিছু শোনা (এবং দেখার) জন্য বলা যায় স্টেথোস্কোপের চেয়ে এখন সত্যিকারের এক উন্নত প্রযুক্তি চিকিৎসকদের হাতে। অচিরেই স্টেথোস্কোপের পরিবর্তে চিকিৎসকদের গলায় স্মার্ট-ইকোফোন ঝুলতে থাকলে অবাক হওয়ার কিছু নেই।

পকেটে প্যাথলজি ল্যাবরেটরি

অনেক সংক্রামক রোগ দ্রুত শনাক্ত করার জন্য সুলভ ল্যাবরেটরি পরীক্ষার দরকার হয়। আজকাল এর জন্য গ্রামাঞ্চলে বহনযোগ্য ল্যাব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। সম্প্রতি ইম্পেরিয়াল কলেজ এমন এক ধরনের ডিসপোজেবল ইউএসবি মেমোরি স্টিক আবিষ্কার করার ঘোষণা দিয়েছে, যা এক ফোঁটা রক্ত থেকেই এইডস ভাইরাসের মাত্রা নির্ণয় করতে পারবে। মনে করা হচ্ছে, অচিরেই এই ধরনের প্রযুক্তি আরও অনেক রকম জীবাণু সংক্রমণ নির্ণয় করতে পারবে। অর্থাৎ, প্যাথলজি ল্যাবরেটরি এখন পকেটে বহনযোগ্য।

ক্যান্সার হওয়ার প্রবণতা শনাক্ত করার জন্য জেনোমিকস

২০১৬ সালের মার্চ মাসে ভেরিতাস জেনেটিক্স কোম্পানি জানিয়েছে, তারা মাত্র ৯৯৯ ডলারে পূর্ণ-জেনোম সিকোয়েন্সিং করবে। অনেকদিন ধরে ১০০০ ডলারে পূর্ণ-জেনোম সিকোয়েন্সিং করার আশা করা হচ্ছে। ভেরিতাস কোম্পানি সেই লক্ষ্য পূর্ণ করার প্রথম আশ্বাস দিল। যাদের পরিবারে ক্যান্সার হওয়ার ইতিহাস আছে তারা সাধারণ জন্মসূত্রে এর জিন বহন করেন। এমন ৩০ রকমের জিন শনাক্ত করার পরীক্ষা করতে এখন খরচ পড়ে ২৪৯ ডলার। কয়েকটি কোম্পানি অন্য আরও কিছু ক্যান্সার জিন সুলভে শনাক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে। এর ফলে ক্যান্সার জিন শনাক্ত করার প্রক্রিয়া এখন সাধারণ মানুষের আর্থিক সক্ষমতার নাগালে চলে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে।

মাইক্রোফ্লুয়িড চিপস এবং এক ফোঁটা রক্ত

এক ফোঁটা রক্ত দিয়ে স্বল্প ব্যয়ে দ্রুত নির্ভুল প্যাথলজিকাল পরীক্ষা করার প্রতিশ্রুতি অনেক কোম্পানিই দিয়েছে। কিন্তু এতদিন তা বাস্তবায়িত হয়নি। তবে এ বছর জেনালাইট (Genalyte) কোম্পানি অনেকদূর এগিয়েছে। তারা অনেক জটিল প্যাথলজিকাল পরীক্ষা মাইক্রোফ্লুয়িড প্রযুক্তির সাহায্যে সুলভে দ্রুত নির্ভুলভাবে করতে সক্ষম হয়েছে। অচিরেই এই প্রযুক্তির ব্যাপক প্রচলন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ব্যথা, ভয় এবং আছাড় খাওয়া প্রতিরোধে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি

‘ভার্চুয়াল রিয়েলিটি’ (virtual reality) অবশেষে বাস্তবে রূপ লাভ করছে। ২০১৪ সালে ‘ফেসবুক’-এর প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ যখন ‘অকুলাস রিফট’ কিনলেন, সেদিন সকলেই বুঝে নিয়েছিল ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বাস্তব হতে যাচ্ছে। কিন্তু এটা যে ক্রমশ চিকিৎসা জগতেও প্রবেশ করবে এমন ধারণা কারও ছিল না। বাস্তবে দেখা যাচ্ছে, কম্পিউটার গেমস-এর জগত থেকে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি এখন চিকিৎসা জগতেও ছড়িয়ে পড়ছে। এ বছর ‘Lancet’-এ প্রকাশিত একটি পর্যবেক্ষণের ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, আছাড় খাওয়ার প্রবণতা প্রতিরোধে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বিশেষ ভূমিকা রাখতে পারে। এ ছাড়া ব্যথা কমানো, ফোবিয়া দূর করা এবং পোস্ট-ট্রমাটিক স্ট্রেস ডিসঅর্ডার চিকিৎসায় ভার্চুয়াল রিয়েলিটি প্রয়োগ করা যাবে। চিকিৎসা ছাড়া মেডিক্যাল শিক্ষার ক্ষেত্রেও ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বড় রকমের পরিবর্তন আনবে বলে মনে করা হচ্ছে। অবস্থাদৃষ্টে এখন ভার্চুয়াল রিয়েলিটির সম্ভাবনা সত্যিই আমাদের কল্পনার ক্ষমতা ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে হচ্ছে।

করোনার ৩ নতুন উপসর্গ হচ্ছে সর্দি, বমিভাব আর ডায়রিয়া

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ সংস্থা (সিডিসি) করোনাভা্রাসের নতুন তিনটি উপসর্গ চিহিৃত করেছে। নতুন ৩ উপসর্গ হচ্ছে সর্দি, বমিভাব আর ...
Read More

করোনায় শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আসাদুজ্জামানের মৃত্যু

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আসাদুজ্জামান মারা গেছেন। ...
Read More

করোনা উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু

গাজীপুরের শ্রীপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ফিরোজ আল-মামুন (৪০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ফিরোজ উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের মাওনা গ্রামের মৃত ...
Read More

অতিরিক্ত অর্থে মিলছে অক্সিজেন

রাজশাহীতে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। আর এর চাইতেও বেশি আছে করোনা উপসর্গ নিয়ে নতুন রোগীর সংখ্যা। এ ধরনের ...
Read More

উপসর্গে ওসমানী মেডিকেলের অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকরের মৃত্যু

সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানসিক রোগ বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. গোপাল শংকর দে করোনাভাইরাসের ...
Read More

চীনের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হতে পারে বাংলাদেশে

করোনাভাইরাস নির্মূলে চীন আবিষ্কৃত সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বাংলাদেশে হতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। ...
Read More

ক‌রোনায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উপদেষ্টার মৃত্যু

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের চেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট উপদেষ্টা আল্লাহ মালিক কাজেমী মারা গেছেন। শুক্রবার (২৬ জুন) বিকেলে এভার কেয়ার ...
Read More

রাজশাহীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে দু’জনের মৃত্যু,

প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজশাহীতে মারা গেছেন একজন। আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে করোনার উপসর্গ নিয়ে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকালে রাজশাহী মেডিকেল ...
Read More

করোনায় মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যানের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বেসরকারি মার্কেন্টাইল ব্যাংকের উদ্যোক্তা পরিচালক ও ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি ...
Read More
%d bloggers like this: